Mountain View
দেশে ১ কোটি ৩২ লাখ মানুষ ম্যালেরিয়া ঝুঁকিতে


প্রকাশ : জুন ৮, ২০১৬ , ২:০২ অপরাহ্ণ
প্রথম সংবাদ ডেস্ক

ঢাকা : দেশে এখনও ১ কোটি সাড়ে ৩২ লাখ মানুষ ম্যালেরিয়া ঝুঁকিতে রয়েছে। গত ৬ মাসে সারা দেশে ৫ হাজার ৬৫৭ জনকে ম্যালেরিয়া রোগী হিসেবে শনাক্ত করা হয়েছে। এদের মধ্যে এখন পর্যন্ত মৃত্যু হয়েছে ২ জনের। তথ্যানুযায়ী, ম্যালেরিয়ার উচ্চঝুঁকিতে রয়েছে পার্বত্য তিন জেলা রাঙামাটি, বান্দরবান ও খাগড়াছড়ি।

মঙ্গলবার (০৭ জুন) রাজধানীর গুলশানের স্পেকট্রা কনভেনশন সেন্টারে আয়োজিত ‘ম্যালেরিয়া : বর্তমান প্রেক্ষাপট ও ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা’ বিষয়ক গোলটেবিল বৈঠকে এসব তথ্য তুলে ধরা হয়।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের ম্যালেরিয়া নিয়ন্ত্রণ কর্মসূচি, সমকাল ও ব্র্যাক যৌথভাবে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। অনুষ্ঠানে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন ব্র্যাকের ওয়াশ ও ম্যালেরিয়া কর্মসূচির প্রোগ্রাম হেড ডা. মোকতাদির কবীর।

মূল প্রবন্ধে বলা হয়, দেশে বর্তমানে এক কোটি সাড়ে ৩২ লাখ মানুষ ম্যালেরিয়ার ঝুঁকিতে রয়েছে। পার্বত্য তিন জেলা রাঙামাটি, বান্দরবান ও খাগড়াছড়ি এখনো ম্যালেরিয়ার উচ্চঝুঁকিতে রয়েছে। এ পরিস্তিতে ২০১৮ সালের মধ্যে ম্যালেরিয়াপ্রবণ এলাকার শতকরা ১০০ ভাগ ঝুঁকিপূর্ণ জনগোষ্ঠীর জন্য যথোপযুক্ত ম্যালেরিয়া প্রতিরোধ ব্যবস্থা নিশ্চিত এবং ২০২০ সালের মধ্যে ম্যালেরিয়া নির্মূলকরণে ম্যালেরিয়াজনিত রোগে স্থানীয় আক্রান্ত ও মৃত্যুর সংখ্যা শুণ্যের কোটায় নামিয়ে আনার লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে।

এই লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে কার্যক্রম তুলে ধরে মূল প্রবন্ধে আরো বলা হয়, ম্যালেরিয়া নির্মূল কর্মসূচির আওতায় ২০১৫ সাল পর্যন্ত ৬৮ লাখ ৪৫ হাজার ৪৩৭ দীর্ঘস্থায়ী কীটনাশকযুক্ত মশারি বিতরণ করা হয়েছে। বর্তমানে ৩৭ লাখ ২১ হাজার ৫৩২টি কীটনাশকযুক্ত মশারি কার্যকর রয়েছে।

এছাড়া রোগতাত্ত্বিক ও কীটতাত্ত্বিক নিরীক্ষণ, পর্যবেক্ষণ ও মূল্যায়ন প্রক্রিয়া জোরদারকরণ করা হবে। গ্রামভিত্তিক ম্যালেরিয়া রোগীর তথ্য সংগ্রহ এবং ঝুঁকিপূর্ণ গ্রাম শনাক্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থাগ্রহণ, ম্যালেরিয়াজনিত প্রত্যেকটি মৃত্যুর মৌখিক তদন্তসহ বিভিন্ন সচেতনতামূলক কর্মসূচি হাতে নেয়া হয়েছে বলেও মূল প্রবন্ধে উল্লেখ করা হয়।

বৈঠকে প্রধান অতিথি স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম বলেন, ‘দেশ ও জনগণের উন্নয়নে সরকার ডান হাত হিসেবে কাজ করলে বেসরকারি প্রতিষ্ঠান বাম হাত হিসেবে কাজ করে। সরকারি ও বেসরকারি প্রতিষ্ঠানগুলো সম্মিলিতভাবে কাজ করায় ম্যালেরিয়া নিয়ন্ত্রণ কর্মসূচিতে সাফল্য এসেছে। ২০০৮ সালের আগেও ম্যালেরিয়ার যে ভয়াবহ পরিস্থিতি ছিল, দেশে এখন সে অবস্থা নেই।’

ম্যালেরিয়া নিয়ন্ত্রণ কর্মসূচির আওতায় আক্রান্তের সংখ্যা অর্ধেকেরও কমে নেমে এসেছে। মাঝখানে এক বছর বাদ দিলে ম্যালেরিয়ায় মৃত্যুর হারও উল্লেখযোগ্য হারে হ্রাস পেয়েছে বলেও জানান স্বাস্থ্যমন্ত্রী।

তিনি আরো বলেন, ‘শেখ হাসিনা প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব নেয়ার পর স্বাস্থ্য ব্যবস্থাকে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়েছেন। এজন্য সারা দেশে সাড়ে ১৩ হাজার কমিউনিটি ক্লিনিক প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে। এই কমিউনিটি ক্লিনিক বিশ্বের অন্যান্য দেশের কাছে রোল মডেলে পরিণত হয়েছে। জাতিসংঘের মহাসচিব বান কি মুন, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মহাপরিচালক মার্গারেট চ্যান বিশ্বের অন্যান্য দেশকে কমিউনিটি ক্লিনিকের মডেল অনুসরণের পরামর্শ দিয়েছেন।’

দেশকে ম্যালেরিয়ামুক্ত করার প্রত্যয় ব্যক্ত করে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ‘যথাযথ কার্যক্রম গ্রহণের কারণে বাংলাদেশ পোলিওমুক্ত হয়েছে। ইবোলা ও জিকা ভাইরাস দেশে প্রবেশ করতে পারেনি। তাই আমি বিশ্বাস করি, বাংলাদেশ একদিন ম্যালেরিয়ামুক্ত হবে।’

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের পরিচালক (রোগ নিয়ন্ত্রণ) ও লাইন ডিরেক্টর (সিডিসি) অধ্যাপক ডা. একেএম শামসুজ্জামান বলেন, ‘গত ৬ মাসে ৫ হাজার ৬৫৭ জন ম্যালেরিয়া রোগী শনাক্ত হয়েছে। এদের মধ্যে মাত্র ২ জনের মৃত্যু হয়েছে। মৃত্যু কমলেও শনাক্তকরণ উল্লেখযোগ্য হারে থাকছে।’

তবে ম্যালেরিয়ারর ঝুঁকি হ্রাসে গ্লোবাল ফান্ডের মতো অন্যান্য দাতাসংস্থার আর্থিক সহায়তা প্রয়োজন বলে মনে করেন তিনি।

সমকালের নির্বাহী সম্পাদক মুস্তাফিজ শফির সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন- স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. দীন মো. নুরুল হক, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রতিনিধি ডা. কমর রেজওয়ান ও ব্র্যাকের টিবি, ম্যালেরিয়া ও ওয়াশ কর্মসূচির পরিচালক ড. আকরামুল ইসলাম প্রমুখ।



পুরোন সংবাদ দেখুন

প্রকাশকঃ মোহাম্মাদ রাজীব ।
সম্পাদকঃ মোস্তফা জামান (মিলন)
প্রধান নির্বাহী সম্পাদকঃ এ এম জুয়েল ।
মোবাইলঃ ০১৭১১৯৭৯৮৪৩
prothomsangbadbd@gmail.com

অফিসঃ প্রথম সংবাদ ডট কম
এক্সট্রিম আনলক, ফাতেমা সেন্টার
দোকান নং ৩১৪, ৪র্থ তলা (বিবির পুকুর পশ্চিম পাড়)
৫২৩ সদর রোড, বরিশাল - ৮২০০
বাংলাদেশ ।

© প্রথম সংবাদ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি Design & Developed By: Eng. Zihad Rana
Copy Protected by ENGINEER BD NETWORK